‘হাওরে ধান পঁচনই, মাছ মড়কের প্রধান কারণ’

মুক্তবার্তা ডেস্ক:অতিরিক্ত বৃষ্টি এবং পাহাড়ি ঢলের অপরিপক্ক ধান পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় ধীরে ধীরে পঁচে যায়। এতে পানিতে বায়োলোজিক্যাল অক্সিজেন ডিমান্ডের পরিমাণ কমে যায়। ফলে মাছ মারা যায় ।

এমনটাই জানিয়েছেন হাওর পরিদর্শনে যাওয়া বাংলাদেশের কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞ দল।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টার দিকে বাংলাদেশের কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের সভা কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন আহবায়ক প্রফেসর ড. মুহাম্মদ মাহফুজুল হক।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয় যে, পানিতে অক্সিজেনের পরিমান কম ও কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ বেশি থাকায় পানির অম্লতা বৃদ্ধি পায়। এতে কোন অ্যামোনিয়া ও নাইট্রাইটের পাওয়া যায়নি। এতে ১৯ প্রকারের মাছ ও জলজ প্রাণির পোনাও পাওয়া গেছে।

আরো বলা হয়, হাওরের যে অঞ্চলে গভীরতা বেশি সেখানে মাছ কম মারা যায়। আর যেখানে গভীরতা কম সেখানে মাছ বেশি পরিমাণে মারা যায়।

হাঁস মারা যাওয়ার বিষয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, হাঁসের ডিএনএ ল্যাবে এনালাইসিস করা হয়। তবে রক্তে কোন বিষাক্ত দ্রব্যের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। বিশেষজ্ঞ দল হাসেঁর মৃত্যর কারণ হিসাবে হাওরের পানিতে ভেসে আসা বিষাক্ত পোকামাকড় খাওয়াকে দায়ী করেন।

Related posts

Leave a Comment