রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাবে হামলা, ভাঙচুর

মুক্তবার্তা ডেস্ক: ঝালকাঠির রাজাপুরের থানা রোডে রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাবে সন্ত্রাসী হামলা, ভাঙচুর ক্যামেরা-ল্যাপটপসহ কয়েক লাখ টাকার মালপত্র লুটে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার সন্ধ্যার এই ঘটনায় রাজাপুর থানায় রাতেই লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সহসভাপতি আলমগীর শরীফ।

অভিযোগে তিনি বলেন, সোমবার সন্ধ্যায় মাগরিবের আজান দিলে সংগঠনের সদস্যরা থানা মসজিদে নামাজ আদায়ের জন্য তালা দিয়ে যান। সংবাদ প্রকাশের জের ধরে এই সময় সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আবুল হাসানাত সুমন, উপজেলা যুবদলের সভাপতি জাকারিয়া সুমন, রাজিব ফরাজি, জাকারিয়া নয়ন, দুলাল তেওয়ারী, বিএনপি নেতা কাজল শরীফ, রেজোয়ান, সোহেল, সোনাসহ আরও ১০/১২ জন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সাংবাদিক ক্লাবে হামলা চালান। রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাবের সামনের সাইবোর্ড ভাঙচুর করেন এবং অফিসের দরজার তালা ভেঙে ভেতরে ঢুকে ক্যামেরা ও ল্যাপটপ লুটে নেন। এছাড়া টেলিভিশন-আসবাবপত্রসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র ভাঙচুর করেন। এতে কয়েক লাখ টাকা মূল্যের মালামাল লুটে নিয়ে আরও লক্ষাধিক টাকার মালামাল ক্ষতিগ্রস্ত করেন বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।

সাংবাদিক ক্লাবের সভাপতি রহিম রেজা ও সম্পাদক এনামুল হক অভিযোগ করে জানান, সাংবাদিকরা মাগরিবের নামাজ পড়তে গেলে সুযোগ বুঝে অফিসে সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়েছে। থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। কী ব্যবস্থা নেয় তার অপেক্ষায় আছি। জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় না আনা হলে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে জানান তারা।

সাংবাদিকরা জানান, রাজাপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিত্যক্ত ভবন সংস্কার করে ভাড়া চুক্তিতে সাংবাদিক ক্লাবের সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত সেই চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই চুক্তি ভঙ্গ করে ভবন ছাড়ার নোটিশ দেয়ায় আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। বিচারাধীন মামলায় স্থিতিবস্থা বজায় রাখার আদেশকে লঙ্ঘন করে আদালত অবমাননা করা হয়েছে। বিষয়টি আদালতকেও যথাযথভাবে অবহিত করা হবে বলে জানান তারা।

হামলার ঘটনায় বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম, ঝালকাঠি প্রেসক্লাব, রিপোর্টার্স ইউনিটিসহ বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠন ও মহল তীব্র নিন্দা জানিয়ে জড়িতদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন।

Related posts

Leave a Comment