বিবিসির টিভি বিতর্কে আপত্তি মে-র, থাকবেন করবিন

মুক্তবার্তা ডেস্ক:বৃটেনে জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে বিবিসির টিভি বিতর্কে অংশ নিতে সম্মত হয়েছেন প্রধান বিরোধী দল লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিন। তবে প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে বলেই দিয়েছেন তিনি বিতর্কে থাকতে পারছেন না।

এদিকে জেরেমি করবিন আগে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন, মে না থাকলে তিনি নাও থাকতে পারেন। তবে এখন তিনি অংশ নেয়ার কথা জানিয়েছেন।

বিবিসির খবরে বলা হয়, লিবারেল ডেমোক্রেট দলের নেতা টিম ফ্যারন, ইউকিপের পল নাটাল, এসএনপির উপ প্রধান অ্যাংগাস রবার্টসন, গ্রিন পার্টির উপ নেতা ক্যারোলিন লুকাস ও প্লেইড সাইমরু দলের নেতা লিয়ান উড বিতর্কে অংশ নেবেন। অপরদিকে প্রধানমন্ত্রী মে না থাকায়, বিতর্কে ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ দলের প্রতিনিধিত্ব করবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আম্বার রুড।

উল্লেখ্য, কয়েক সপ্তাহ আগে প্রধানমন্ত্রী আকস্মিক আগাম নির্বাচনের ঘোষণা দেয়ার সময় ক্ষমতাসীনদের সঙ্গে করবিনের লেবার পার্টির ব্যবধান ছিল ২০ পয়েন্টেরও বেশি। অথচ এখন তা ৫-৬ শতাংশের মধ্যে নেমে এসেছে। লেবার পার্টির নির্বাচনী ইশতিহার বেশ প্রশংসিত হয়েছে। এছাড়া সাম্প্রতিক অনেক অনুষ্ঠানে করবিন তুলনামূলক ভালো ফল করেছেন। ফলে দলের জনপ্রিয়তাও অনেকখানি বাড়াতে সক্ষম হয়েছেন তিনি।

বিবিসির খবরে বলা হয়, লেবার পার্টি থেকে আগে বলা হয়েছিল, থেরেসা মে অংশ না নিলে, করবিনও নেবেন না। কিন্তু এখন তিনি অংশ নেয়ার কথা জানিয়েছেন।

বিতর্কে অংশ না নেয়ায় থেরেসা মেরও সমালোচনা করেন করবিন। তিনি বলেন, ‘ক্যামব্রিজে আমার সঙ্গে বিতর্ক করতে রাজি না হওয়াটা হবে প্রধানমন্ত্রীর দুর্বলতার আরেকটি লক্ষণ। শক্তিমত্তার নয়। প্রধানমন্ত্রীর উচিত বিতর্কে আসা, আলাপ আলোচনা করা, আর বিতর্ক করা।

Related posts

Leave a Comment