বন্যার সঙ্গে বিএনপি কর্মীদের গ্রেপ্তারের সম্পর্ক দেখছেন রিজভী

মুক্তবার্তা ডেস্ক:বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে লেলিয়ে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেছেন, চারটি কারণে সরকার এই গ্রেপ্তার চালাচ্ছে। এর একটির সঙ্গে হাওরে বন্যার সম্পর্ক হয়েছে। তার দাবি, বন্যা মোকাবেলায় সরকারের ব্যর্থতা ঢাকতেও বিএনপি-নেতাকর্মীদেরকে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে।

সোমবার নয়াপল্টনে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল এই অভিযোগ করেছেন। তিনি বলেন, ‘কোন ইস্যু বা আন্দোলন সংগ্রাম কিংবা কোন কারণ ছাড়াই বিশেষ অভিযানের নামে দেশব্যাপী বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের গণগ্রেপ্তার করা হচ্ছে।’

আকস্মিকভাবে দেশব্যাপী বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও গ্রেপ্তারে জন্য অন্যতম চারটি কারণ আছে বলে মনে করেন রিজভী। তিনি বলেন, হেফাজতের লোকজনের ওপর নির্যাতন-নিপীড়ন চালালেও এখন আবার ভোটের জন্য হেফাজতের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তুলেছে সরকার। তাদের এই দ্বিচারিমূলক রাজনীতি যাতে কেউ ধরতে না পারে সেজন্য দেশব্যাপী বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে জুলুমের অভিযান চলছে।

রিজভীর দাবি ভারতের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী যেসব সমঝোতা স্মারক বা চুক্তি করেছেন সেটি নিয়ে সারাদেশের মানুষ ক্ষোভে-বিক্ষোভে ফেটে পড়েছে। ব্যর্থ সফরে জনমনে যে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে তাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতেই দেশব্যাপী বিএনপিসহ বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের ওপর সরকারি বাহিনী ঝাঁপিয়ে পড়েছে।

রিজভী বলেন, সুনামগঞ্জ, নেত্রকোণা, কিশোরগঞ্জসহ হাওর এলাকাগুলোতে মেঘালয়ের পাহাড় থেকে বয়ে আসা পানির ঢলে বিস্তীর্ণ এলাকার অধিবাসীরা এখন হাহাকার করছে। ধানক্ষেতগুলো পাহাড়ি ঢলে ভেসে গেছে। হাজার হাজার টন মাছ ও জলজ প্রাণী পচে গিয়ে সারা এলাকা এক বীভৎস পূঁতিদূর্গন্ধময় পরিবেশে মানুষ নিঃশ্বাস নিতে পারছে না। লাখ লাখ মানুষের গৃহে খাবার নেই। ধানক্ষেতগুলো নষ্ট হয়ে যাওয়ায় ফসলের মৌসুমে কৃষকের গোলা ধানে ভরে উঠবে না। এখানে সরকারের কোন উদ্যোগ নেই। সরকারের সার্বিক ব্যর্থতা ঢাকতেই দেশব্যাপী বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে লেলিয়ে দেয়া হয়েছে।

সবশেষ কারণ হিসেবে রিজভী মনে করেন, বাংলাদেশের বর্তমান অর্থনীতি লুটপাটের ওপর নির্ভরশীল। প্রকাশ্যে দুর্নীতিকে সমর্থন ও আশকারা দিয়েছে বর্তমান ভোটারাবহীন আওয়ামী সরকারের ক্ষমতাশালী ব্যক্তিরা। সরকারি ব্যাংকের হাজার হাজার কোটি টাকা আত্মসাতকে স্বাভাবিক বলেই অভিমত ব্যক্ত করেছেন অর্থমন্ত্রী।

রিজভী বলেন, ক্ষমতাসীনদের সৃষ্ট জাতীয় অর্থনীতির চরম দুর্দশা আড়াল করতেই দেশব্যাপী এখন বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে চালানো হচ্ছে এই পুলিশি সাঁড়াশী অভিযান।

জভী বলেন, বিএনপিসহ বিরোধী দলকে নিশ্চিহ্ন করার অভিযানে উৎসাহিত হয়ে এখন ক্ষমতাসীন দলের লোকেরা বেআইনি দখলদারিত্ব চালাচ্ছে। নিজেরা নিজেরা খুনোখুনিতে মেতে উঠেছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এমপি ও মন্ত্রীর লোকেরা নিজেরা হানাহানি করছে, পুলিশের ওপর আক্রমণ চালাচ্ছে আধিপত্য বজায়ের জন্য।

Related posts

Leave a Comment