পাকিস্তানের ওপর ভিসা নিষেধাজ্ঞা দেয়নি কুয়েত

মুক্তবার্তা ডেস্ক:কুয়েতে নিযুক্ত পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত পরিষ্কার করে বলেছেন, পাকিস্তানের ওপর কুয়েত কোনো ভিসা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেনি। খবর খালিজ টাইমসের।

পাকিস্তানি গণমাধ্যম জিও টিভির এক প্রতিবেদন পাক রাষ্ট্রদূত গোলাম দস্তগির বলেছেন, কুয়েতে পাকিস্তানি নাগরিকদের ভিসা নিষিদ্ধের যে খবর সোশ্যাল মিডিয়াতে ঘুরে বেড়াচ্ছে তা ভিত্তিহীন।

তিনি আরও বলেছেন, একই ধরনের গুজব ২০১১ সালেও ছড়িয়েছিল।

রাশিয়ান বার্তা সংস্থা স্পুটনিক ইন্টারন্যাশনালের এক প্রতিবেদনে গতকাল বুধবার দাবি করা হয়, সিরিয়া, ইরাক, ইরান, পাকিস্তান এবং আফগানিস্তানের ওপর ভিসা নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কুয়েত। পর্যটন, ব্যবসা এবং স্পাউজ ভিসাও এর অন্তর্ভুক্ত বলে খবরে বলা হয়।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, কুয়েত সরকার বলেছে, উল্লেখিত পাঁচটি দেশের নাগরিকরা ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। ইসলামি জঙ্গিদের ঠেকাতেই তারা এই ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন।

কুয়েত একমাত্র দেশ যারা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশের আগেই সিরিয়ার ওপর ভিসা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। ২০১১ সাল থেকে কুয়েত সিটি সব সিরীয় নাগরিকদের ভিসা প্রদান স্থগিত করে।

২০১৫ সালে একটি শিয়া মসজিদের জঙ্গিদের বোমা হামলায় ২৭ জন কুয়েতি নাগরিক মারা যায়। ২০১৬ সালে এক জরিপ অনুযায়ী, কুয়েতে অভিবাসীদের বসবাসের জন্য সবচেয়ে খারাপ দেশ।  এর প্রধান কারণ হচ্ছে দেশটির কঠোর শরীয়াহ আইন।

কুয়েত গালফ কো-অপেরাশন কাউন্সিল(জিসিসি)’র  সদস্য দেশ। এই পদক্ষেপের কারণে ইরান ও জিসিসির মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে দিল কুয়েত। ১৯৯০ সাল থেকেই জিসিসি নিরাপত্তার গ্যারান্টর হিসেবে কাজ করছে ওয়াশিংটন।

Related posts

Leave a Comment