নতুন বছরে নতুন জীবনের পথে মিম

মুক্তবার্তা ডেস্কঃ বাগদানের দুই মাসের মাথায় আজ বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন ঢালিউডের জনপ্রিয় টিত্রনায়িকা ও সাবেক ‘লাক্স’ তারকা বিদ্যা সিনহা সাহা মিম। পাত্রের নাম সনি পোদ্দার। মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে সনাতন ধর্মের রীতি মেনে হবে তাদের বিয়ের অনুষ্ঠান। সেখানে দুই পরিবারের সদস্য এবং কাছের কয়েকজন আত্মীয়-স্বজন উপস্থিত থাকবেন বলে নায়িকার এক ঘনিষ্ঠজন জানিয়েছেন।

এর আগে গত দুই দিন ধরে হয়েছে মিম ও তার হবু বর সনি পোদ্দারের গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান। সেখানেও শুধু উপস্থিত ছিলেন দুই পরিবারের সদস্য ও ঘনিষ্ঠজনেরা। এবার সাতপাকে ঘোরার পালা। দেশের শোবিজ অঙ্গণ থেকে মিমই নতুন বছরের প্রথম বিয়েটা করতে চলেছেন।

এর আগে গত ১০ নভেম্বর বাগদান সারেন মিম। সেদিন ছিল নায়িকার জন্মদিন। বিমেষ এ দিনে সকালে তিনি একটি গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানান, সন্ধ্যায় বিশেষ মানুষকে নিয়ে বিশেষ পরিকল্পনা আছে তার। সেদিন সন্ধ্যায়ই সনি পোদ্দারের সঙ্গে বাগদান সেরে চমকে দেন মিম। পরে বাগদানের ছবি নিজের ফেসবুকে পোস্টও করেন।

মিমের হবু বর সনি পোদ্দার কুমিল্লার ছেলে। পেশায় একটি বেসরকারি ব্যাংকের কর্মকর্তা। ছয় বছর ধরে মিমের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক। একটা সময় দুই পরিবারের সদস্যদের তাদের সম্পর্কের কথা জানানো হয়। দুই পরিবারই তাতে সবুজ সংকেত দেয়। এরপর গত ১০ নভেম্বর মিমের জন্মদিনে তারা বাগদান সারেন।

ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই এই নায়িকার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে ব্যাপক চর্চা। ১৪ বছরের অভিনয় জীবনে একাধিক অভিনেতার সঙ্গে তার নাম জড়িয়েছে। শুরুর দিকে যখন তিনি নাটকে অভিনয় করতেন, তখন অভিনেতা আব্দুন নূর সজলের সঙ্গে প্রেমের গুঞ্জন ছড়িয়েছিল মীমের। এরপর অভিনেতা ও গায়ক তাহসান রহমান খানের সঙ্গে কাজ করলে তার সঙ্গেও নাম জড়ায়।

পরবর্তীতে বড় পর্দায় পথচলা শুরু করেন দীর্ঘাদেহী এই অভিনেত্রী। সেখানে চিত্রনায়ক বাপ্পী চৌধুরীর সঙ্গে পরপর তিনটা সিনেমায় অভিনয়ের পর সবাই এ জুটিকে বিয়ে দিয়ে হানিমুনে পর্যন্ত পাঠিয়ে দিয়েছিল। তবে কোনোটারই সত্যতা মেলেনি। এবার সনির সঙ্গে মিমের বিয়ের মাধ্যমে সব গুঞ্জনেই পাকাপাকি ফুলস্টপ পড়তে চলেছে।

২০০৭ সালে ‘লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার’ সুন্দরী প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হন মিম। একই বছর হুমায়ুন আহমেদ পরিচালিত ‘আমার আছে জল’ সিনেমার মাধ্যমে তার চলচ্চিত্রে অভিষেক হয়। ২০১৪ সালে ‘জোনাকির আলো’ সিনেমায় অভিনয় করে ৩৯তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে মৌসুমীর সঙ্গে যৌথভাবে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার অর্জন করেন মিম।

দীর্ঘ ১৪ বছরের ক্যারিয়ারে বেশ কয়েকটি দর্শকপ্রিয় সিনেমা উপহার দিয়েছেন এই নায়িকা। দেশের পাশাপাশি কাজ করেছেন কলকাতার সিনেমায়ও। বর্তমানে মুক্তির অপেক্ষায় আছে মীমের ‘পরাণ’ ও ‘দামাল’নামে দুটি সিনেমা। শুটিং চলছে ‘ইত্তেফাক’ ও ‘অন্তর্জাল’ নামে আরও দুটির। তবে এখন শুধু বিয়ের ব্যস্ততা।

Related posts

Leave a Comment