তাইওয়ানে সমকামীদের বিয়ের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আদেশ

মুক্তবার্তা ডেস্ক:তাইওয়ানে সমলিঙ্গের বিয়ের বৈধতা দিতে পার্লামেন্টে আইন পাস করার জন্য আদেশ জারি করেছেন দেশটির সুপ্রিম কোর্টের বিচারকরা। আজ বুধবার দেশটির সুপ্রিম কোর্টের কয়েকজন বিচারক এই আদেশ দেন। খবর বিবিসির।

এই আইন পাস হলে এশিয়ার মধ্যে তাইওয়ান হবে প্রথম দেশ- যেখানে সমকামী যুগলরা বিয়ের আইনি বৈধতা পাবেন।

সুপ্রিম কোর্ট জানায়, তাইওয়ানের বর্তমান আইন সমলিঙ্গের বিয়েতে বাধা প্রদান করে। এটি সমঅধিকার আইনের লঙ্ঘন এবং অসাংবিধানিক।

পুরাতন আইন সংশোধন বা নতুন আইন পাস করার জন্য পার্লামেন্টকে আদালত দুই বছর সময় বেঁধে দিয়েছেন।

দেশটিতে সমকামীদের ওপর বিভিন্ন ধরনের নির্যাতনের চিত্র দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আদালত জানায়, ‘মৌলিক নৈতিকতা রক্ষার নামে সমলিঙ্গের দুজনকে বিয়ে করতে অনুমতি না দেয়া মানে হচ্ছে- অযৌক্তিকভাবে ভিন্ন ব্যবস্থা নেয়া।’

‘এই ধরনের ভিন্ন ব্যবস্থা চেতনা এবং সমঅধিকারের পরিপন্থী। আর এটি তাইওয়ানের সংবিধান সমর্থন করে না।’

আদালতের এই আদেশের মানে হচ্ছে- তাইওয়ান সরকারকে এখন পুরাতন আইন সংস্কার বা নতুন আইন পাস করতে হবে। তবে পার্লামেন্ট এই বিষয়ে পদক্ষেপ নেবে কিনা তা এখনো স্পষ্ট নয়।

সমকামী সম্প্রদায়রা আশা করছেন, আইনপ্রণেতারা বিদ্যমান বিবাহ আইন সংশোধন করে সমলিঙ্গের বিয়ের অনুমতি দেবেন। যাতে করে বিপরীত লিঙ্গ দম্পতিদের মতো সন্তান দত্তক নেয়া, লালনপালন, উত্তরাধিকার এবং জরুরি চিকিৎসার ক্ষেত্রে একে অপরের জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারে।তবে তাদের ভয় হচ্ছে, তাইওয়ান সরকার এমনটি করবে না। তার পরিবর্তে সমলিঙ্গের বিয়ের অধিকার দিতে নতুন একটি আইন পাস করবে- যাতে কিছু অধিকার দেয়া হবে। কিন্তু সব বিষয়ে সমান অধিকার থাকবে না।

Related posts

Leave a Comment