ঠাকুরগাঁওয়ে নারীকে নগ্ন করে নির্যাতনের অভিযোগ

মুক্তবার্তা ডেস্ক:ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার জগন্নাথপুর এলাকায় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের নির্দেশে এক নারীকে নগ্ন করে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বর্তমানে ওই নারী ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন।

এ ঘটনায় জগন্নাথপুর ইউনিয়নের গৌরীপুর গ্রামে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এলাকার মানুষ সদর উপজেলার জগন্নাথপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন ও নির্যাতনকারীদের বিচার দাবি করছেন।

একই সময়ে খোঁচাবাড়ী হাটের ব্যবসায়ী ও গৌরীপুর গ্রামের প্রমথ চন্দ্র রায়কেও তুলে নিয়ে নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযোগের অঙ্গুলি ইউপি সদস্য আনিসুর রহমান, কেদারনাথ রায় ও নারী সদস্য মালেক বেগমের দিকে।

নির্যাতনের শিকার সদর উপজেলার দৌলতপুর মৌজার খোচাবাড়ি হাট এলাকার ওই নারী অভিযোগ করে বলেন, তার একমাত্র সম্বল ভিটামাটির ওপর চেয়ারম্যানের চোখ পড়েছে। তিনি (চেয়ারম্যান) মিথ্যা অপবাদ দিয়ে তাকে ভিটে থেকে উচ্ছেদ করার পাঁয়তারা করছেন।
ওই নারী বলেন, ‘আওয়ামী লীগের ওই চেয়ারম্যান ও তিন মেম্বরের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী  রবিবার রাতে আমাকে তুলে নিয়ে নগ্ন করে নির্যাতন করে। এ সময় দুই লাখ টাকা দাবি করে। টাকা না দিলে আমাকে বাড়ি ছাড়তে বলে।’

ওই নারী আরো অভিযোগ করেন, ‘মহিলা মেম্বার মালেকা আমাকে নগ্ন করে ইউনিয়ন পরিষদে মারধর করে। আর এই দৃশ্য দেখেন চেয়ারম্যান, পুরুষ মেম্বার আর যুবলীগ নামধারী সন্ত্রাসীরা।’

স্বামী পরিত্যক্তা ওই নারীর ছোট মেয়ে জানায়, টিপসই দেয়ার নাম করে তার মাকে বাড়ি থেকে জোর করে নিয়ে যায় চেয়ারম্যানের লোকেরা।

Related posts

Leave a Comment