ট্রাম্পের স্বাস্থ্যসেবা বিল, থাকছে ওবামাকেয়ার

মুক্তবার্তা ডেস্ক:নিজ দলে বিরোধিতায় ভোটাভুটিতে হারের শঙ্কায় যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসে তোলা স্বাস্থ্যসেবা বিলটি প্রত্যাহার করে নিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৩টায় ওই বিলের ওপর ভোটাভুটি হবে বলে ঘোষণা দিয়েছিলেন কংগ্রেসের মুখপাত্র। কিন্তু প্রতিনিধি পরিষদে রিপাবলিকান সদস্যদের মধ্যে ২৮ থেকে ৩৫ জন ওই বিলের খসড়া নিয়ে বিরোধিতা করেছিলেন বলে জানায় বিবিসি নিউজ। এই প্রেক্ষাপটে ভোটাভুটির নির্ধারিত সময়ে বিলটি প্রত্যাহার করে নেওয়ার ঘোষণা আসে।

এই বিল নিয়ে মার্কিন কংগ্রেসে রিপাবলিকানরাই বিভক্ত হয়ে পড়েছিল। যদিও বিল প্রত্যাহারের পর ট্রাম্প দূষেছেন ডেমোক্রেটদের। তিনি ভবিষ্যতবাণী করেছেন, ‘ওবামাকেয়ার একদিন ধসে পড়বে। আমাদের আরও কিছুদিন ওবামাকেয়ার চালিয়ে যেতে হবে। ডেমোক্রেটরা যদি সভ্য হতে পারে, তারা যদি আমাদের সঙ্গে আসে, তাহলে দুই দল মিলে অসাধারণ একটা স্বাস্থ্যসেবা বিল আমরা দিতে পারব।’

ক্ষমতায় আসার পর প্রথম আইন প্রণয়ন করতে গিয়েই ব্যর্থ হলেন ট্রাম্প । এটি তার জন্য বড় ধাক্কা বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। তাছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের জনগণের মধ্যেও ট্রাম্পের ওই প্রস্তাব জনপ্রিয়তা পায়নি। সাম্প্রতিক এক জরিপের বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, মাত্র ১৭ শতাংশ উত্তরদাতা ওই স্বাস্থ্যসেবা বিলের পক্ষে বলেছেন।

এদিকে ‘ওবামাকেয়ার’ বাতিল করা ছিল ট্রাম্পের অন্যতম প্রধান নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি। ওবামার সময়ের স্বাস্থ্যসেবা সম্পর্কিত বিলটি ‘ওবামাকেয়ার’ নামেই পরিচিত। নিজের দলেই সমর্থন না পেয়ে ট্রাম্প তার প্রতিশ্রুতি পূরণে ব্যর্থ হলেন। পাশাপাশি ওবামার প্রণীত স্বাস্থ্যসেবা বিলও বাতিল করা সম্ভব হল না।

হাউজ স্পিকার পল রায়ান বলেন, ট্রাম্পের স্বাস্থ্যসেবা বিলের সমর্থনে ২১৫টি রিপাবলিকান ভোট পাওয়া যাবে না। এমন অনিশ্চয়তার মুখে তিনি এবং ট্রাম্প কংগ্রেসে ভোট না করতে সম্মত হন। এটাকে হতাশাজনক বলে বর্ণনা করেছেন স্পিকার পল রায়ান।

অন্যদিকে ডেমোক্রেটরা এটাকে যুক্তরাষ্ট্রের জনগণের বিজয় বলে বর্ণনা করেছেন। তারা বলেছেন, ওবামার স্বাস্থ্যসেবা আইন বাতিল করে ট্রাম্পের বিল প্রণয়ন করা হলে যুক্তরাষ্ট্রের নিম্ন আয়ের মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হতেন।

গত বৃহস্পতিবারে কংগ্রেসের ভোটাভুটি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু নিজ দলেই বিরোধিতার কারণে সেদিন ভোট করা যায়নি। ট্রাম্প শুক্রবারে ভোট করার ব্যাপারে নিজ দলের সদস্যদের প্রতিই আল্টিমেটাম দিয়েছিলেন, তাতেও লাভ হয়নি।

Related posts

Leave a Comment