জাবি শিক্ষার্থীকে হাতকড়া, ক্ষমা চাইলেন ওসি

মুক্তবার্তা ডেস্ক:জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) এক শিক্ষার্থীকে হাতকড়া পরানো অবস্থায় চিকিৎসা দেয়ার ঘটনায় হাইকোর্টে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করা করেছেন আশুলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহসিন কবিরসহ চার পুলিশ। এই আবেদন আমলে নিয়ে তাদেরকে ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহতি দিয়েছে আদালত। এ বিষয়ে পরবর্তী আদেশের জন্য আগামী ৯ জুলাই দিন ধার্য করা হয়েছে।

বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি কাজী ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ সোমবার এই আদেশ দেন। আদালতে পুলিশের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী আব্দুল মতিন খসরু ও অনাবিল আনন্দ রায়।

গত ২৯ মে জাবি শিক্ষার্থী নাজমুল হোসাইনকে হাতকড়া পরা অবস্থায় এনাম মেডিকেল কলেজে চিকিৎসা দেয়ার ঘটনায় আশুলিয়া থানার ওসিসহ দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের স্বপ্রণোদিত হয়ে ৩১ মে তলব করে হাইকোর্ট। একই সঙ্গে অসুস্থ নাজমুলকে হাতকড়া পরা অবস্থায় চিকিৎসা দেয়া কেন বেআইনি হবে না তা জানতে চেয়ে রুলও জারি করে। ৩১ মে ওসি আদালতে হাজির হয়ে বলেন, চিকিৎসা দেয়ার সময় এক এসআই ও দুই কনস্টেবলের দায়িত্ব ছিল। পরে আদালত তাদের চারজনকে ৫ জুন আবারও আসতে বলেন।

সংবাদপত্রে এ বিষয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদন নজরে নিয়ে আদালত এ রুল জারি করেন। আদালতে সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদন নজরে আনেন আইনজীবী এস এম রেজাউল করিম।

Related posts

Leave a Comment