একক ক্ষমতা প্রয়োগের সুযোগ নেই: প্রধানমন্ত্রী

মুক্তবার্তা ডেস্ক:প্রধানমন্ত্রী বলেন,  ‘রাষ্ট্র পরিচালনার ক্ষেত্রে তিন স্তম্ভ আইনসভা, নির্বাহী বিভাগ ও বিচার বিভাগকে সমঝোতার ভিত্তিতে চলতে হবে এবং কাজ করতে হবে। একটি আরেকটিকে দোষারোপ করে কোনো দিন একটি রাষ্ট্র সুষ্ঠুভাবে পরিচালিত হতে পারে না।’ এ ব্যাপারে সবাইকে সচেতন হওয়ার জন্য অনুরোধ জানান তিনি।

নিম্ন আদালতের বিচারকদের চাকরি শৃঙ্খলা ও আচরণসংক্রান্ত বিধিমালা প্রণয়ন নিয়ে প্রশাসনের ‘অহেতুক’ দীর্ঘসূত্রতার জন্য উষ্মা প্রকাশ করা হচ্ছে উচ্চ আদালত থেকে। এ ছাড়া বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিয়েও কখনো কখনো সংশয় প্রকাশ করা হয়। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা ও সরকারের মন্ত্রী বিশেষ করে আইনমন্ত্রী পরস্পর বক্তব্য তুলে ধরেন।

মঙ্গলবার হবিগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বলেন, সব সরকাই বিচার বিভাগের ওপর বিমাতাসুলভ আচরণ করে। প্রশাসন কোনো সময়ই চায়নি বিচার বিভাগ স্বাধীনভাবে চলুক।’

পরদিন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিচার বিভাগ সম্পূর্ণ স্বাধীন বলে দাবি করেন। প্রধান বিচারপতির বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি আরো বলেন, কোনো দেশে বিচারপতিরা প্রকাশ্যে এত কথা বলেন না।

কোনো বিভাগের ক্ষমতা কম নয়- উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা আইন প্রণয়ন করি, আর তা প্রয়োগ করে বিচার বিভাগ, এটা কার্যকর করার ক্ষেত্রে রয়েছে নির্বাহী বিভাগ। কেউ এককভাবে চলতে পারবে না। সবাইকে সমঝোতা নিয়ে চলতে হয়।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, কেউ যদি মনে করেন, এখানে আমার ক্ষমতাটা আমি সবটুকু প্রয়োগ করব। কিন্তু সেই প্রয়োগটা করবে কে, তার জন্য তো কাউকে লাগবে। এ কথা যেন কেউ ভুলে না যায়।’

Related posts

Leave a Comment