ইলিয়াস কাঞ্চনের ওপর যে কারণে ক্ষুব্ধ জায়েদ খান

মুক্তবার্তা ডেস্কঃ আসন্ন শিল্পী সমিতির নির্বাচনে চিত্রনায়িকা নিপুণকে সাধারণ সম্পাদক করে একটি প্যানেল গড়েছেন একসময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। তিনি লড়বেন সভাপতি পদে। কিন্তু ‘বেদের মেয়ে জোছনা’ খ্যাত নায়কের এই কাজে মোটেই খুশি নন বিপক্ষ প্যানেলের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী জায়েদ খান। ইলিয়াস কাঞ্চনের নির্বাচনে আসা উচিত হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

সোমবার এফডিসিতে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে গত দুইবারের সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান বলেন, ‘কাঞ্চন ভাই সব শিল্পীকে ডেকে বলতে পারতেন, শিল্পী সমিতির দায়িত্ব নিতে চাই। তাহলে তার বিপক্ষে কেউ নির্বাচন করত না। কিন্তু তিনি একটি প্যানেল বেছে নিলেন। তার মানে তিনি একটি পক্ষের হয়ে গেলেন। কাঞ্চন ভাইয়ের মতো মানুষের কোনো পক্ষের হওয়া উচিত নয়। সবার হওয়া উচিত ছিল। তিনি আমাদের গর্ব।’

জায়েদ এও জানান, তারা পুরো প্যানেল নিয়ে ইলিয়াস কাঞ্চনের কাছে গিয়েছিলেন। কিন্তু তিনি তাদের ফিরিয়ে দিয়েছেন। জায়েদ বলেন, ‘আমরা কাঞ্চন ভাইকে বলেছিলাম, ভাইয়া আপনি কারও পক্ষে কাজ করবেন না। আপনি সবার। কিন্তু তিনি আমাদের ফিরিয়ে দিয়েছেন। তিনি আমাদের কাছে মোস্ট সিনিয়র এবং সম্মানিত ব্যক্তি। তাই কাঞ্চন ভাইয়ের একটি পক্ষ নিয়ে নির্বাচন করা উচিত হয়নি।’

প্রসঙ্গত, এটি চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ১৭তম নির্বাচন। যেটি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৮ জানুয়ারি। দীর্ঘ ২১ বছর পর ফের এই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন ইলিয়াস কাঞ্চন। এর আগে তিনি ১৯৮৯ সালে শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন। এবার লড়ছেন সভাপদি পদে। তার প্যানেল থেকে সাধারণ সম্পাদক পদে নিপুণ লড়ছেন প্রথমবার।

অন্যদিকে, গত দুইবারের মতো এবারও মিশা সওদাগরকে সভাপতি পদে দাঁড় করিয়ে সাধারণ সম্পাদক পদে লড়ছেন জায়েদ খান। গত দুই মেয়াদে নির্বাচিত হয়ে তারা শিল্পী সমিতির দায়িত্ব সামলেছেন। এবারও দুজনে একই প্যানেলে থেকে স্ব স্ব পদে নির্বাচন করছেন। তাদের সঙ্গে আছেন একঝাঁক তারকা প্রার্থী।

এদিকে ইলিয়াস কাঞ্চন-নিপুণদের প্যানেলেও রয়েছে একঝাঁক তারকা। কাজেই দুই প্যানেলের জমপেশ লড়াই দেখার অপেক্ষায় ঢালিউড।

Related posts

Leave a Comment