আমলারা বিচার বিভাগের স্বাধীনতা চান না

মুক্তবার্তা ডেস্ক: প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা (এসকে সিনহা) বলেছেন, বিচার বিভাগের সঙ্গে সবসময় সরকার বিমাতাসুলভ আচরণ চলে আসছে। এটি আজকে না, শুধু এই সরকার না, সব সরকারের আমলেই এমন আচরণ করা হয়। তিনি বলেন, ‘প্রশাসন কোনো দিনই চায়নি, এখনো চায় না বিচার বিভাগ স্বাধীনভাবে কাজ করুক। প্রশাসনের যারা উচ্চপর্যায়ে আছেন, তাদের পরিচালনা করেন কিছু আমলা, কিছু লোক পরামর্শ দিয়ে থাকেন। সত্য জিনিসটি তাদের কর্মক্ষেত্রে উপস্থাপন করা হয় না। যার পরিপ্রেক্ষিতে তারা মনে করে বিচার বিভাগ তাদের প্রতিপক্ষ। এটি তাদের ভুল ধারণা।’

মঙ্গলবার বিকালে হবিগঞ্জ বার লাইব্রেরি আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘বিচার বিভাগ কারও প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে কাজ করে না। বিচার বিভাগ সবসময় একটি ভারসাম্য রক্ষা করে চলে। তাদের যত কিছুতে ত্রুটি থাকে তা নিয়ে বিচার বিভাগের কাছেই আসতে হয়। আমরা তাদের বিচার করি। তারা নিরাপত্তা পায় না, প্রশাসনের কাছে নিরাপত্তা পায় না, নিশ্চয়তা পায় না চাকরিসংক্রান্ত, প্রমোশনসংক্রান্ত, তখনই এই বিচার বিভাগ তাদের নিশ্চয়তা দেয়।’

জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি আব্দুল মোছাব্বিরের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক জমশেদ মিয়া ও নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক মো. লুৎফুর রহমানের পরিচালনায় এতে বক্তব্য দেন, জেলা ও দায়রা জজ মো. আতাবুল্লাহ, অ্যাডভোকেট চৌধুরী আব্দুল হাই, অ্যাডভোকেট সৈয়দ আফরোজ বখত, নূরুল আমিন, অফিল উদ্দিন, সিরাজুল হক চৌধুরী প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘প্রশাসনের আজকে যারা ক্ষমতায় আছেন সব সময় তারা থাকবেন না। তারাও একদিন অবসরে যাবেন। তখন সাধারণ নাগরিক হিসেবে থাকবেন। তাদের আত্মীয়স্বজন, পরিবার-পরিজন তারাও এদেশে থাকছেন। তাদের তো সমস্যা হতে পারে। যদি বিচার বিভাগকে শক্তিশালী করা হয়, তবে তাদের সাময়িক ক্ষমতার পরে যে অনিশ্চয়তার মাঝে পড়বেন তখন কিন্তু বিচার বিভাগই তাদের নিশ্চয়তা দেবে। এটি তারা যখন ক্ষমতায় থাকেন তখন ভুলে যান। যার পরিপ্রেক্ষিতে তারা মনে করেন বিচার বিভাগ আমাদের সবগুলো নিয়ে ফেলল, খেয়ে ফেলল। এটি তাদের ভুল ধারণা।’

আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘আপনারা যারা আইনজীবী তারা এটি তুলে ধরবেন। জনমত গঠন করবেন। তাহলে এ ভুল বোঝাবুঝি দূর হবে।’

Related posts

Leave a Comment