আওয়ামী লীগে এসেও মিলল না রেহাই

মুক্তবার্তা ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে আওয়ামী লীগের চার কর্মী হত্যা মামলার প্রধান আসামি আবুল বাশার কাশু তার আগের দল বিএনপি ছেড়ে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছিলেন ২০১৪ সালের ২০ অক্টোবর। দল পাল্টানোর পৌনে তিন বছরের মাথায় তিনি পেলেন ফাঁসির আদেশ।

তার মত আরও ২২ জনের ফাঁসির আদেশ এসেছে একই মামলায় যারাও তখন বিএনপির রাজনীতিতে জড়িত ছিলেন।

২০০২ সালের ১২ মার্চ সকাল সাড়ে আটটায় বিএনপি সরকারের আমলে আড়াইহাজার উপজেলার জালাকান্দি এলাকার বাড়ি থেকে বাবেক ও তার ফুফাতো ভাই বাদল, ওমর ফারুক ও কবীরকে তৎকালীন আড়াইহাজার থানা বিএনপির সহ-সভাপতি আবুল বাশার কাশু ও সাধারণ সম্পাদক জহির মেম্বারের নেতৃত্বে বাড়ি থেকে ডেকে নেন। পরে লক্ষ্মীবরদী গ্রামে নিয়ে কুপিয়ে ও পুড়িয়ে নির্যাতন চালিয়ে হত্যা করা হয়। নিহতরা সবাই ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের কর্মী সমর্থক।

এই ঘটনায় নিহত বাবেকের বাবা আজগর আলী মেম্বার বাদী হয়ে তৎকালীন আড়াইহাজার বিএনপির সভাপতি আবু বাশারকে প্রধান আসামি করে ১৮ জনের নাম উল্লেখ করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই ঘটনায় পুলিশ তদন্ত শেষে ২০০২ সালে ২১ জনকে সাক্ষী করে ২৩ জনকে অভিযুক্ত করে আদালত অভিযোগপত্র দাখিল করে।

শেষ পর্যন্ত আড়াইহাজার আওয়ামী লীগের এই নেতার বক্তব্যই প্রমাণ হলো। আদালতের রায়ে সর্বোচ্চ সাজাই পেলেন বিএনপি ছেড়ে আওয়ামী লীগে ফেরা নেতা আবুল বাশার কাশু।

Related posts

Leave a Comment