আইনি নোটিশ: যা বললেন আজিজ-ফারিয়া

মুক্তবার্তা ডেস্ক:‘আল্লাহ মেহেরবান’ গানটি প্রকাশের মাধ্যমে মুসলিম অনুভূতিতে আঘাত দেয়ার অভিযোগ এনে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ফের আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া বরাবর। রোববার বিকাল ৪টায় দ্বিতীয় চিঠিটি পাঠানো হয়। এবার এটি পাঠিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের এক আইনজীবী। নোটিশে বলা হয়, প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি তাদের নতুন ছবি ‘বস-টু’-এর একটি গানে আল্লাহ’র পবিত্র নামকে ব্যবহার করে অশ্লীলভাবে দৃশ্যায়ন করেছে।

একই অভিযোগে গতকাল রোববার সকালে নোটিশ পাঠিয়েছিলেন সুপ্রিম কোর্টের অপর এক আইনজীবী। তাই একদিনেই দুটি চিঠি গেল প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে।

এদিকে বিকালে পাঠানো দ্বিতীয় নোটিশটির আইনজীবীর নাম রাজিন আহমেদ। তিনি মূলত মেধাস্বত্ব নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে আসছেন। আইনি চিঠির বিষয়টি নিয়ে রাজিন আহমেদ সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘গতকাল আমার পরিচিত দুই ছোট ভাই বিষয়টি আমার নজরে আনে। এরপর আমি যখন এটি দেখতে যাই, তা খুব অবমানকর মনে হয়েছে। বিশেষ করে গানটির দৃশ্যে ‘আল্লাহ’ নামটি ব্যবহার করার বিষয়টি। ‘আল্লাহ’ শব্দ ইসলামকে সরাসরি নির্দেশ করে। গানটিতে এর ব্যবহার ধর্মীয় অনুভূতিকে আঘাত করে। তাই আমি আইনি নোটিশ পাঠিয়েছি। এ গান থেকে ‘আল্লাহ’ ও ‘মেহেরবান’ শব্দ দুটি মুছে দেয়া হোক।’

বিষয়টি নিয়ে  জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার ও চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ বলেন, ‘আমি আজ রাতে জার্মানিতে যাচ্ছি। বিষয়টি জেনেছি। তাই আমার অবর্তমানে আইনি নোটিশের বিষয়টি দেখভাল করবেন আইনজীবী মি. ফারুক। আমরা আইনিভাবেই বিষয়টি নিয়ে সমাধানের চেষ্টা করবো।’

এদিকে, একই বিষয়ে রোববার সকালেই সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. আজিজুল বাশারের পক্ষে আইনজীবী মুহাম্মদ হুজ্জাতুল ইসলাম খান রেজিস্ট্রার ডাকযোগে প্রথম আইনি নোটিশটি পাঠান।

তাতে বলা হয়, ২৭ মে ইসলামী গান মনে করে আমার মক্কেল ইউটিউবে ‘আল্লাহ মেহেরবান’ গানটি খুঁজে পান। কিন্তু তিনি দেখতে পান গানটি আইটেম সং। এই গানটিতে আল্লাহর পবিত্র নামকে এত জঘন্যভাবে চিত্রায়িত করা হয়েছে যা বলার অপেক্ষা রাখে না।

উল্লেখ্য, ২৬ মে সন্ধ্যায় প্রকাশিত হয় জিৎ-নুসরাত ফারিয়ার আইটেম গানটি। দুই বাংলার আলোচিত মুক্তিপ্রতীক্ষিত ছবি ‘বস- টু’র এই গানটির শিরোনামও রাখা হয়েছে ‘আল্লাহ মেহেরবান’।

এ নিয়ে অন্তর্জালের কমেন্ট বক্সে ভালোই তোপের মুখে আছেন নুসরাত ফারিয়া ও মুক্তিপ্রতিক্ষীত ‘বস- টু’ সংশ্লিষ্টরা। যদিও ফারিয়া নিজের ভাষ্যটি দিয়েছেন বেশ কৌশলে। তিনি বললেন, ‘সমালোচিত বলেই আলোচিত।’

সিনেমাটি বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়া ও জিতের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জিৎস ফিল্ম ওয়ার্কস প্রাইভেট লিমিটেডের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হয়েছে।

Related posts

Leave a Comment